জুমআর দিনে যে সময়ে মেয়েদের দোয়া খুব সহজেই কবুল হয়….

[X]

জুমার দিন তো দোয়া কবুলের দিন। কিন্তু মেয়েদের তো মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে দেওয়া হয় না। কিছু মসজিদে ব্যবস্থা থাকলেও সব মসজিদে সে ব্যবস্থা নেই। মেয়েদের দোয়া জুমআর দিনে কোন সময়ে কবুল হয় এবং কীভাবে করলে তাদের দোয়া কবুল হয়।

বিস্তারিত :

দোয়া কবুলের যে সময়গুলো, সেটাকে তাহকিক ওলামায়ে কেরাম এভাবে চিহ্নিত করেছেন যে, ইমাম সাহেব খুতবা দেওয়ার আসার পর থেকে সালাত শেষ করা পর্যন্ত এই সময়টুকু আপনি দোয়া করতে পারেন। এটা তো আমাদের অনেক সময় জানার কথা, কখন ইমাম সাহেব খুতবার জন্য আসেন, কখন সালাত শেষ হয়ে থাকে।

আর বিকেল বেলায় সালাতের আসরের আগ থেকে আরম্ভ করে শেষ করে সূর্যাস্তের আগ পর্যন্ত এই সময়টুকু দোয়া কবুলের সময়। এই সময়গুলোতে আপনি বেশি বেশি করে দোয়া করতে পারেন, যদিও আপনি মসজিদে যেতে পারেননি

কিন্তু আপনার ঘর তো আল্লাহর, এই পৃথিবী পুরোটাই তো মসজিদ। রাসূলুল্লাহ (সা.) এই উম্মতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করতে গিয়ে সহিহ বুখারি হাদিসের মধ্যে এরশাদ করেছেন, গোটা পৃথিবীটাই আমার চেনা মসজিদে পরিণত করে দেওয়া হয়েছে 

এটা আমাদের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য। অন্য উম্মতের কিন্তু সালাত আদায় করতে হলে তাদের মসজিদে গিয়ে সালাত আদায় করতে হতো। ঘরের মধ্যে সালাত আদায় করার কোনো সুযোগ ছিল না। কিন্তু এই উম্মাতের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এই উম্মতকে আল্লাহতায়ালা অনুমোদন দিয়েছেন, যেখানে পৃথিবীর যে ভূখণ্ডে যেই স্থানে থাকুক না কেন, সেটা ঘরে হতে পারে, বাইরে হতে পারে, রাস্তায় হতে পারে, মাঠে হতে পারে—সবখানে তিনি সালাত আদায় করতে পারবেন।আর আপনি যেখানে আছেন, এটাও মসজিদ মনে করেন । এখান থেকেও আপনি দোয়া করতে পারেন, কোনো অসুবিধা নেই। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের দোয়া আপনি যেখানে থাকুন না কেন, আল্লাহ সুবহানাতায়ালা সেটা শোনেন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *